ভ্রমনে ক্রেডিট কার্ড বিষয়ক সতর্কতা 10

ক্রেডিট কার্ড আমি অনেক বেশি ব্যবহার করি। বিশেষ করে ক্রেডিট কার্ড এনডোর্স করার কারণে ডলার এনডোর্সে বার বার করার ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকা যায় বলে আমি ক্রেডিট কার্ডটাই পছন্দ করি। তবে শুধু কার্ডের উপর ভরসা করে কখনো দেশের বাইরে যাইনি। এবার ভারত যাবার সময় আমি আমার দুটো ক্রেডিট কার্ড নিয়ে যাই। এর মধ্যে একটি স্ট্যান্ডার্ট চার্টার্ড ব্যাংকের মাস্টার কার্ড আর অন্যটি সিটি ব্যাংকের এমেক্স কার্ড।

দেশ থেকে যাবার আগে আমি নিয়মানুসারে দুই ব্যাংকে ফোন দিয়ে কথা বলে যাই। দুই ব্যাংক থেকেই আমাকে জানানো হয় পাসপোর্ট কার্ড এনডোর্স করা আছে এবং পর্যাপ্ত ব্যালেন্স আছে। আইন অনুযায়ী আমরা দুজন ২০,০০০ টাকা নিয়ে যেতে পারি সেটাও আমাদের সাথে ছিলো। ভারতে পৌছে কলকাতা বিমানবন্দরে আমি কেএফসি থেকে খাবার কেনার সময় প্রথমবার এমেক্স কার্ডটা ব্যবহার করার চেষ্টা করি। আমাকে অবাক করে দিয়ে ক্যাশের মেয়েটা জানালো আমি পিন নাম্বার ভুল দিয়েছি। আরেকবার চেষ্টা না করে আমি আমার অন্য মাস্টারকার্ডটা দিয়ে পেমেন্ট করি। উল্লেখ্য দুটো কার্ডই আমি দেশে সচরারচর ব্যবহার এবং পিন ছাড়া এ দুটো কার্ড ব্যবহার করা যায়না। আমি পরে আমার মোবাইলে গোপনে সেইভ করে রাখা পিন মিলিয়ে দেখলাম আমি ভুল করিনি।


যাইহোক আমি একটি কার্ড ব্যবহার করেই চলেছি। বেংগালোরে চিকিৎসার জন্য আমার বেশ বড় এমাউন্ট খরচ হয়ে যায়। তখন আবার এমেক্স কার্ড ব্যবহার করতে যেয়ে দেখি আবার পিন কোড ভুল বলছে। এবার আমি বুঝতে পারি সীমানা পার হবার পর থেকেই আমার কার্ডের পিন আসলে কাজ করছেনা। কার্ডের পিছনে থাকা নাম্বারে ব্যাংকে ফোন দিয়ে জানাই বিষয়টা, তারা বলল কার্ড ও এনডোর্সমেন্ট সব ঠিক আছে, আপনি হয়তো পিন ভুল দিচ্ছেন। আমি বললাম দুবছর আমি এই পিন দিয়েই কার্ডটা ব্যবহার করছি, ভুল হলে কিভাবে এতদিন চললাম। উত্তরে বললো আপনি চাইলে আপনার রেজিস্টারড নাম্বার থেকে ফোন করে পিন পরিবর্তন করে নিতে পারেন। তার অর্থ দাঁড়ালো আমি বিদেশ থেকে দেশে এসে আবার পিন নাম্বার পরিবর্তন করে যাবো? তারা বললো আমার সীম রোমিং করা থাকলে তারা আমাকে ফোন করে পরিবর্তন করে দিতে পারতো। শেষ পর্যন্ত আমতা আমতা করে বললো আপনি চাইলে অ্যাপস ডাউনলোড করে পিন পরিবর্তনের চেষ্টা করে দেখতে পারেন। অ্যাপস ডাউনলোড করে দেখলাম সেটাতেও পিন লাগে! কোনভাবেই সে কার্ডটা আর ব্যবহার করা গেলনা। আরেকবার ফোন দিয়ে ফোনের ১০ মিনিট অনর্থক খরচ করারও আর ইচ্ছা হলোনা।


সঙ্গে থাকা টাকা, অন্য কার্ড আর স্ত্রীর কার্ড এর সাহায্যে এবারের মতো কোন সমস্যা ছাড়াই দেশে ফিরে আসতে পারলাম। অতএব বিদেশ গেলে অন্তত দুটো ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কার্ডের উপর ভরসা করবেননা। এমেক্স কার্ডের উপর তো নয়ই। এর আগে আমি তিনটি দেশে এমেক্স কার্ড একবারের জন্যেও ব্যবহার করতে পারিনি। সংগে অন্তত কিছু ক্যাশ ডলার রাখবেন।


যেখানেই যাবেন পরিবেশ দূষণ হয় এমন কিছু করবেন না।

কোই যান একটি ব্লগ, বাংলাদেশের সকল ভ্রমণ তথ্য এবং পরামর্শ একজায়গায় করার লক্ষে কোই যান এর যাত্রা শুরু হয় ২০১৭ সালে। কই যান.কম বাংলাদেশের প্রথম এবং সবচেয়ে বড় পর্যটন ও ভ্রমণ সম্পর্কিত ওয়েব সাইট। ভ্রমণের ক থেকে ‍ঁ জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। লিখা সম্পর্কে যেকোনো পরামর্শ অথবা কপি রাইট এর বেপারে লিখুন : [email protected]

সর্বাধিক জনপ্রিয় বিষয়গুলি

আমাদের পছন্দের লিখা গুলি